স্টার্ফ রিপোর্টার: জাতিসংঘের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দেওয়া এক বাণীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপরোক্ত আহ্বান জানান।

তিনি বাণীতে উল্লেখ করেন, বিশ্ব এখনও দারিদ্র্য, ক্ষুধা, সশস্ত্র সংঘাত, সন্ত্রাসবাদ, নিরাপত্তাহীনতা ও জলবায়ু পরিবর্তনের মতো বিভিন্ন সমস্যায় জর্জরিত, যেগুলো সমাধানে জাতিসংঘ আরও কার্যকর ও দৃঢ় ভূমিকা নিতে পারে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখনও রোহিঙ্গা সংকটের মতো দৃশ্যমান অনেক সমস্যা রয়েছে, এই সব সমস্যা সমাধানে প্রয়োজন একীভূত প্রচেষ্টা এবং বড় ধরনের পদক্ষেপ।

তিনি বলেন, আমাদের চ্যালেঞ্জগুলো পরস্পর সংযুক্ত এবং এগুলো কেবল বহুপক্ষীয় পদক্ষেপের মাধ্যমে সমাধান করা যেতে পারে। ভবিষ্যতের মহামারিসহ অন্যান্য বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ আমরা কেবল ঐক্যবদ্ধভাবে মোকাবিলা করতে পারি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ৭৫ বছর আগে জাতিসংঘ যখন প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল সে সময় আর বর্তমান বিশ্ব ভিন্ন। আমরা আশা করি জাতিসংঘ সবসময় সব দেশের বিশ্বস্ত অংশীদার হয়ে থাকবে।

জাতিসংঘকে ভবিষ্যতের জন্য একটি বাস্তব ও অর্থবহ রোডম্যাপ প্রণয়নের তাগিদ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, একটি বাস্তব ও অর্থবহ রোডম্যাপের মাধ্যমে জাতিসংঘ নিরাপদ ভবিষ্যত বিনির্মাণ করতে পারে, যেখানে শান্তি ও উন্নয়নের নিশ্চয়তা থাকবে এবং মানবাধিকার থাকবে সুরক্ষিত।

তিনি বলেন, শান্তিপূর্ণ, টেকসই, সার্বজনীন ও ন্যায়ভিত্তিক বিশ্ব প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশ জাতিসংঘসহ বিশ্ব সম্প্রদায়ের সঙ্গে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।