স্টার্ফ রিপোর্টার: রাষ্ট্র পক্ষের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ ও পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন রাষ্ট্রপতি এ্যাভোকেট আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শোক বার্তায় রাষ্ট্রপতি বলেন, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের মৃত্যুতে দেশর আইন অঙ্গনে এক বিরাট অপূরণীয় ক্ষতি হল। তিনি রাষ্ট্র পক্ষে আইনি সহায়তা দিয়ে কঠিন মামলা মোকাবিলা করে রাষ্ট্রকে জয় এনে দিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শোকবার্তায় বলেছেন, তার মৃত্যুতে রাষ্ট্রের আইন অঙ্গনে যে শূণ্যতা সৃষ্টি হয়েছে তা সহজে পূরণ করা সম্ভব নয়। সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি মাহবুবে আলমের অবদান জাতি সবসময় শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবে।

তিনি আরও বলেন, তিনি একজন প্রথিতযশা আইনজীবী হিসেবে জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ অনেক আইনী বিষয়ে অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে ভূমিকা রেখেছেন এবং সবসময় ন্যায়নিষ্ঠ থেকে আইনপেশায় নিয়োজিত ছিলেন যা অনুসরণীয় হয়ে থাকবে।

এছাড়া আরো শোক প্রকাশ করে পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রী আবুল কালাম আব্দুল মোমেন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য তোফায়েল আহমেদ, আমীর হোসেন আমু এবং সভাপতিমন্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ডা. বশির উল্লাহ, সুপ্রীম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী খুরশিদ আলম খানসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দসহ আরও অনেকে।

আজ রোববার মাহবুবে আলম সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) সন্ধ্যা ৭টা ২৫ মিনিটে চিকিৎসাধীন ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাহে রাজেউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭১ বছর।

এর আগে ৪ঠা সেপ্টেম্বর তিনি  উপস্বর্গ নিয়ে (জ্বর, সর্দি, কাশি) সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি হন। নমুনা পরীক্ষায় তার ভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ১৮ই সেপ্টেম্বর মাহবুবে আলমের শারীরিক অবস্থার হঠাৎ অবনতি ঘটলে আইসিইউতে নেয়া হয়।