স্টার্ফ রিপোর্টার: শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত এই পেঁয়াজ সাতক্ষীরার ভোমরা বন্দর দিয়ে আমদানি করেছে ব্যবসায়ীরা। আর যেগুলো এখনো আটকে আছে সেগুলোও পর্যায়ক্রমে আসতে শুরু করেছে।

ভোমরা সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট এ্যসোসিয়েশন নেতারা গণমাধ্যমকে জানান, অনুমোদন পেয়ে ভারতীয় সীমান্তে যে সকল পেঁয়াজের ট্রাক আটকা পড়ে আছে সেগুলোই বাংলাদেশে প্রবেশ করতে পারবে।

অ্যাসোসিয়েশনের কোষাধ্যক্ষ মাকসুদ খান বলেন, ভারত সরকার ভোমরাসহ তিনটি বন্দর দিয়ে ২৫ হাজার মেট্রিক টন পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দিয়েছে। ভোমরা স্থল বন্দরের বিপরীতে ওপারের ঘোজাডাঙ্গায় আটকা পড়া ৩৫০ ট্রাক পেঁয়াজ রোদের তাপে পঁচন ধরে নষ্ট হতে চলেছে বলে ব্যবসায়ী আমদানিকারকরা জানান।

এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান নাসিম বলেন, অনুমতি পাওয়া পেঁয়াজ ভর্তি ৩৮টি ট্রাক স্থল বন্দর দিয়ে প্রবেশ করলেও এখনো ১২৫ ট্রাক পেঁয়াজ আটকা পড়ে আছে।