ডেস্ক রিপোর্ট: করোনাভাইরাসের তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড পুরো বিশ্ব। এরই মধ্যে সামনে আসছে করোনার ভিন্ন ভিন্ন ধরন। এমন পরিস্থিতিতে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা শঙ্কা প্রকাশ করেছে, বিশ্ব কখনো পুরোপুরি করোনামুক্ত হবে না। শুক্রবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা-এর আপদকালীন পরিস্থিতি মোকাবিলা বিষয়ক কমিটির ভার্চুয়াল বৈঠকে করোনাভাইরাসের নতুন ধরনের গণসংক্রমণ প্রবণতা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা-এর সংশ্লিষ্ট কমিটির বৈঠকটি জানুয়ারির শেষ সপ্তাহে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পরিস্থিতির গুরুত্ব আঁচ করে তা দু’সপ্তাহ এগিয়ে আনা হয়। আগামী ১০০ দিনের মধ্যে প্রতিটি দেশে কারোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগ অভিযান শুরুর সুপারিশ করেছে কমিটি। ভ্যাকসিন বণ্টনের বিষয়ে ধনী দেশগুলোর ‘ভূমিকা’ নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে বৈঠকে। পাশাপাশি, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা-এর টেকনিক্যাল টিমের প্রধান মারিয়া ভ্যান কেরখোভে করোনাভাইরাসের নতুন ধরনের উৎপত্তি ও সংক্রমণের উৎস চিহ্নিত করা কথা বলেছেন।

বৈঠকের পর এক বিবৃতিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, জিন প্রযুক্তির সাহায্যে ডিএনএ বিশ্লেষণের মাধ্যমে করোনাভাইরাসের সবগুলো স্ট্রেন চিহ্নিত করা প্রয়োজন। প্রয়োজন বিশ্বজুড়ে তথ্যের আদানপ্রদান। না হলে আরও বড় বিপর্যয়ের আশঙ্কা রয়েছে।