স্টার্ফ রিপোর্টার: সোমবার দুপুর সাড়ে ৩টায় বিসিবির অন্য পরিচালকদের সঙ্গে মিটিং শেষে মিডিয়ার মুখোমুখি হয়ে বোর্ড সভাপতি পাপন বলেন, শ্রীলঙ্কা আমাদেরকে যে শর্ত দিয়েছে, সেটা মেনে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ কেন, কোনো কিছুই খেলতে যাওয়া সম্ভব নয়।

এই সিদ্ধান্তের কারণে করোনা পরবর্তী সময়ে শ্রীলঙ্কা সফরের মাধ্যমে বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার কথা থাকলেও তা অনিশ্চিত হয়ে গেল। মূলতঃ কোয়ারন্টিন সময় এবং অনুশীলন নিয়ে দুই বোর্ডের মাঝে মতৈন্যকের সৃষ্টি হয়েছে। বাংলাদেশকে শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট বোর্ড যেসব শর্ত দিয়েছে, তাতে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

বাংলাদেশের আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ৩টি টেস্ট ম্যাচ খেলতে যাওয়ার কথা শ্রীলঙ্কায়। তিনি বলেন, আজ আমরা আমাদের অবস্থান পরিষ্কারভাবে তাদেরকে জানিয়ে দিয়েছি। এখন তারা যদি শর্ত রিভিউ করে, তাহলে আমরা পরবর্তী বিবেচনা করব।

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের শর্ত হলো, বাংলাদেশ দলকে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে, এই সময়টাতে হোটেলের রুম থেকেও বের হতে পারবে না, সফরে নেট বোলার নিয়ে যাওয়া যাবে না। বিসিবি বলছে, ১৪ দিন নয়, ৭ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকবে টাইগার ক্রিকেটাররা।

এখানেই আপত্তি জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি। তিনি বলেন, আমাদের ঘর থেকে বের হতে না দেয়ার শর্ত তো অতিরিক্ত। আমি আরও বেশ কিছু জায়গায় কথা বলেছি। সে সব জায়গায় তো এমন নেই। তাহলে তাদের মধ্যে এমন কোনো সমস্যা রয়েছে, যেটা আমরা জানতে পারছি না!

পাপন আরো বলেন, নির্দেশনায় বলা আছে, শ্রীলঙ্কায় গিয়ে ডাম্বুলায় কোয়ারেন্টিনে থাকবে বাংলাদেশ দল। সেখানে এমনিতেই সবাই আইসোলেটেড হয়ে থাকবে। এমন নয় যে কলম্বোয় থাকছে। ডাম্বুলায় থাকা মানেই তো আইসোলেটেড থাকা। এসব দেখেই আমাদের মনে হয়েছে, এখানে ভিন্ন কিছু রয়েছে। আমাদের দলের সঙ্গে এসবের কোনো মিল নেই।