নিজস্ব প্রতিনিধি: দেশব্যাপী মহাসাড়ম্বে চলছে হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গা পূজা। আর এ উপলক্ষে দেশের হিন্দু ধর্মালম্বীদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন অনলাইন নিউজ পোর্টাল নিউজইনফিনিটি ডটনেট এর প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক অধ্যক্ষ সুখেন্দু শেখর বৈদ্য।

শুভেচ্ছা জানিয়ে তিনি বলেন, অসাম্প্রদায়িকতা বা সার্বজনীনতার যে কথা বলা হয়, এর বড় উদাহরণ বাংলাদেশের দুর্গা উৎসব।সব ধর্মের মানুষের এরকম এক হয়ে দূর্গাপূজা আয়োজন বিশ্বের মধ্যে এক অনন্য উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। যদিও এবারের পূজা করোনা মহামারীর কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মুল পূজার অনুষ্ঠান করা হয়েছে। তারপরও যেন মিলনমেলায় পরিনত হয়েছে এই উৎসব।

তিনি আরো বলেন, সৌহাদ্য-সম্প্রীতির এই দেশে মৌলবাদের স্থান হতে পারে না। যারা মৌলবাদে বিশ্বাসী তারাই এদেশের শত্রু। ঈদ আর দূর্গা পূজা যেন এদেশের সব জাতি ধর্ম বর্ণের উৎসবের মেলবন্ধনে পরিনত হয়েছে। আর এই মেলবন্ধন অটুট থাকলে দেশে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটতে পারে না।

সুখেন্দু শেখর বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবরই বলে আসছেন মৌলবাদের স্থান এই বাংলাদেশে নেই। তার দৃষ্টান্ত তিনি দেখিয়েছেন দেশের সব পূজা মণ্ডপে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী দ্বারা করা নিরাপত্তার ব্যবস্থা করে।

তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) দুর্গতিনাশিনী দশভুজা দেবীর মহাষষ্টি পূজার মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে বাঙ্গালী সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা। আর পাঁচদিন ব্যাপী এই পূজা শেষ হবে ২৬ অক্টোবর সোমবার দশমী (দেবীর বিসর্জন) এর মধ্য দিয়ে শেষ হবে এবারের পূজা।

এছাড়া স্বাস্থ্যবিধি মেনে ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই পূজার আনুষ্ঠানিকতা শুরু করা হয়েছে।
করোনাভাইরাস তচনছ করে দিয়েছে মানুষের জীবন ও প্রকৃতি। পরিবর্তন করে দিয়েছে পুরো পৃথিবী। এ কারণে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিদিন ভোর হতেই ঢাকা মহানগরীসহ দেশের সকল পূজা মণ্ডপে পুরোহিতের ভক্তিকণ্ঠে ‘যা দেবী সর্বভূতেষু মাতৃরুপেন সংস্থিতা-নমস্তৈস্য নমস্তৈস্য নমোঃ নমোঃ’ মন্ত্র উচ্চারণে মুখরিত হয়ে উঠেছে মন্দির প্রাঙ্গন।